মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা

বাংলাদেশ একটি কৃষি প্রধান দেশ। কৃষিই এই পুরানগড় ইউনিয়ন এর আর্থ সামাজিক উন্নয়নের মূল অংশ। তাই এই কৃষি ভিত্তিক কার্যক্রম সাধারন মানুষের হাতের নাগালের মধ্যে নেয়ার জন্য ২০০২ সালে পুরানগড় ইউনিয়ন এর পরিষদ ভবনের নীচ তলায় ৫ নং কক্ষে অফিসটি অবস্থিত। আসুন সেবা নিন ভাল থাকুন। 

  • কী সেবা কীভাবে পাবেন
  • প্রদেয় সেবাসমুহের তালিকা
  • সিটিজেন চার্টার
  • সাধারণ তথ্য
  • সাংগঠনিক কাঠামো
  • কর্মকর্তাবৃন্দ
  • তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা
  • কর্মচারীবৃন্দ
  • বিজ্ঞপ্তি
  • ডাউনলোড
  • আইন ও সার্কুলার
  • ফটোগ্যালারি
  • প্রকল্পসমূহ
  • যোগাযোগ

 

সরাসরি কৃষি বিষয়ক পরামর্শ। 
 ফসল সম্পর্কিত সকল তথ্য ও পরামর্শ সেবা।
ফসলের রোগ বালাই ও কীটনাশক প্রয়োগ সম্পর্কিত তথ্য।
 সঠিকমাত্রায় সার প্রয়োগ সম্পর্কিত পরামর্শ।
 নতুন নতুন কৃষি প্রযুক্তি ও যন্ত্রপাতি সম্পর্কিত তথ্য।
 বিভিন্ন সার ও কীটনাশকের নিকটস্থ প্রাপ্তিস্থান।
 কৃষি পণ্য ও উপকরণ সম্পর্কিত বাজারদর।
 কৃষি বিষয়ক সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান সমূহের ঠিকানা।
 বিভিন্ন ফসলের বিস্তারিত উৎপাদন প্রযুক্তি সম্পর্কে তথ্য।
পরিবেশ বান্ধব উৎপাদন কৌশল সম্পর্কিত পরামর্শ।
 অন্যান্য তথ্য যেমন:

  • পোল্ট্রি ফার্ম
  • মাছের খামার
  • গবাদীপশু

    সকল শ্রেণীর কৃষকদের সম্প্রসারণ সহায়তা প্রদান
    কৃষকদের দক্ষ ও সম্প্রসারণ সেবা দেওয়া
    কৃষি বিষয়ক কর্মসূচী বিকেন্দ্রীকরন
    চাহিদাভিত্তিক কৃষি সম্প্রসারণ কার্যক্রম গ্রহণ
    সকল শ্রেণীর কৃষকদের সাথে কাজ করা
    কৃষি গবেষণা ও সম্প্রসারণ কার্যক্রম জোরদার করন
    সম্প্রসারণ কর্মীদের জন্য প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা
    উপযুক্ত সম্প্রসারণ পদ্ধতির ব্যবহার
    সমন্বিত সম্প্রসারণ সহায়তা প্রদান
    সম্মিলিত সম্প্রসারণ কার্যক্রম গ্রহণ
    পরিবেশ সংরক্ষণে সমন্বিত সহায়তা প্রদান
    কৃষি বাণিজ্যিকী করন
    কৃষি তথ্য ও যোগাযোগ পদ্ধতির ব্যবহার

কৃষিতে বায়োটেকনোলজি প্রযুক্তি ব্যবহার বাড়ানোর আহ্বান মাননীয় কৃষিমন্ত্রীর

৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৫ তারিখে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট ও International Service for the Acquisition of Agri-Biotec Applications (ISAAA) কর্তৃক যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বিএআরসি মিলনায়তনে Global Perspective of Biotec/GM Crops and its Contribution to Food Security and Poverty Alleviation  শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। কৃষি সচিব জনাব মো. ইউনুসুর রহমান-এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী এমপি। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড. আবুল কালাম আজাদ, নির্বাহী চেয়ারম্যান, বিএআরসি।
 
প্রধান অতিথি মতিয়া চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের বিশাল জনগোষ্ঠির খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং দারিদ্র্য বিমোচনে কৃষি খাতের অবদান উল্লেখযোগ্য। সাড়ে সাতকোটি মানুষের জায়গায় বর্তমানে ১৬ কোটি মানুষের খাদ্য সংস্থান মিটিয়ে আজ আমাদের দেশ খাদ্যে উদ্বৃত্ত এবং বিদেশেও রপ্তানী করছি, এসব সম্ভব হয়েছে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকারের জন্য। বিভিন্ন ফসলের হাইব্রিড প্রচলন করার ফলে আমরা অসময়ে এখন অনেক ফসল পেতে পারি। এখন আমরা জিএম ফসলের দিকে এগুচ্ছি। কৃষি সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞানীদের উদ্দেশ্যে বলেন গবেষণা কার্যক্রম চালানোর ক্ষেত্রে খুব সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে, যাতে করে কৃষিক্ষেত্রে কোনো খারাপ প্রভাব না পড়ে। আমরা প্রমাণ করেছি প্রাজ্ঞ নেতৃত্ব এবং দেশপ্রেম থাকলে শত প্রতিকুলতার মধ্যেও যে কোন সফলতা অর্জন করা সম্ভব। বায়োটেকনোলজির মতো ভূমি এবং পরিবেশ রক্ষাকারী প্রযুক্তিকে আরো বেশি বেশি প্রয়োগ করে আধুনিক কৃষি ব্যবস্থা গড়ে তুলতে সবাইকে সচেষ্ট থাকতে অনুরোধ করেন।
 
কৃষি সচিব জনাব মো. ইউনুসুর রহমান বলেন, নতুন নতুন প্রযুক্তি গ্রহণ এবং গবেষণা কার্যক্রম চালিয়ে ফসলের রোগ প্রতিরোধক্ষম প্রজাতি উদ্ভাবনের বিষয়ে পরামর্শ দেন। সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জনাব প্রফেসর ড. খন্দকার মো. নাসিরুদ্দিন, উপাচার্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও জাতীয় সমন্বয়ক, ISAAA । বিশ্বে বায়োটেক/জিএম ফসলের ভবিষ্যত ও সম্ভাবনা সম্পর্কে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন Mr. Clive James, Founder & Emeritus Chair, ISAAA তিনি বলেন সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষমাত্রা অর্জনে বায়োটেক ফসল গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রাখবে বলে তিনি দাবি করেন। ভারতে বিটি কটনের অবস্থা ও ভবিষ্যত সম্ভাবনা সম্পর্কে উপস্থাপনা করেন Mr. Bhagirath Choudhary, Director, ISAAA. তিনি বলেন ভারত ও পাকিস্তান বিটি কটন চাষ করে প্রভুত উন্নয়ন সাধন করেছে এবং দেশ দুটি আমদানিকারক হতে রপ্তানিকারক হতে সক্ষম হয়েছে। বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি)-এর মহাপরিচালক  ড. রফিকুল ইসলাম মন্ডল বিটি বেগুন বাংলাদেশের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন। উল্লেখ্য ১৯৯৬ সালে বায়োটেক/জিএম ফসলের বাণিজ্যিক চাষাবাদ শুরু হতে ২০১৪ সাল পর্যন্ত প্রতিবছর এর অগ্রগতি প্রকাশ করে আসছে বায়োটেক প্রতিষ্ঠান ISAAA. ২০১৪ সালে বাংলাদেশের বিটি বেগুন বাণিজ্যিক চাষাবাদের বিস্তারিত বিবরণসহ পৃথিবীর মোট ২৮ টি দেশের ১৮ মিলিয়ন গরীব কৃষক কর্তৃক ১৮১.৫ মিলিয়ন হেক্টর জমিতে চাষকৃত বায়োটেক ফসলের বিস্তারিত বিবরণ প্রকাশ করা হয়েছে, যা সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সহায়ক ভূমিকা রাখবে বলে বিজ্ঞানীরা মনে করেন।
 

অনুষ্ঠিত সেমিনারে বায়োটেকনোলজী সংশ্লিষ্ট দেশী বিদেশী গবেষক, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ, গণমাধ্যম কর্মী এবং বায়োটেক সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সংকলন:
বেতার কৃষি অফিসার
কৃষি তথ্য সার্ভিস।

ছবি নাম মোবাইল
মোহাম্মদ মোস্তফিজুর রহমান ০১৮১৩২০৬৩৪৯
দীপন চৌধুরী ০১৮১৮৯১৮৩৮৮

ছবি নাম মোবাইল
মোহাম্মদ মোস্তফিজুর রহমান ০১৮১৩২০৬৩৪৯

ছবি নাম মোবাইল

বিস্তারিত জানার জন্য এই লিংক গুলোতে যেতে পারেন..

http://www.amaderkrishi.com/ourServices.php

উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তার অফিস

পুরানগড় ইউনিয়ন পরিষদ ( ব্লক অফিস)

পুরানগড়,সাতকানিয়া,চট্টগ্রাম।